Chapter-15, Twelfth Night

Ans:-The captain's fair behaviour and friendly concern made Viola entrust the captain with her design. (ক্যাপ্টেনের সদ্ ব্যবহার ও বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক ভায়োলাকে তার পরিকল্পনার দায়িত্ব ক্যাপ্টেনের ওপর ন্যস্ত করাল।)

Ans:-Transforming Viola into a gentleman under the feigned name of Cesario, the captain presented her before the duke Orsino. (ভায়োলাকে সিসেরো নামে এক নকল নামের ভদ্রলোক সাজিয়ে ক্যাপ্টেন রাজার অরসিনোর সামনে হাজির করেছিল।)

Ans:-Olivia fell in love of Vibla (অলিভিয়া ভায়োলার প্রেমে পড়েছিল।)

Ans:-His blind love for Olivia and his hope against hope to be accepted his proposal by her made him to do so.(অলিভিয়ার তার অন্ধ প্রেম ও তার হতাশার মধ্যেও তার প্রনয় প্রস্তাব অলিভিয়ার দ্বারা গৃহীত হওয়ার আশা তাকে এই অবস্থায় ফেলেছিল।)

Ans:-Viola seeing her to stick to her point and her blessed beauty called her proud. (ভায়োলা তাকে তার কথায় অনড় থাকতে ও তার অপরূপ সৌন্দর্য দেখে তাকে গর্বিত বলল।)

Ans:-Viola praised that Orsino loved her with adoration, with tears and with groans that thunderd love and shighs of fire. (ভায়োলা প্রশংসা করল যে অরসিনো তার আন্তরিকতা চোখের জল, তার আর্তনাদ না কেবল ভালোবাসার গর্জন শোনা যেত ও তার প্রেমাগ্নির দীর্ঘশ্বাস দিয়ে ভালোবাসত।)

Ans:-The stranger mistook viola in disguise of Cersario, as Sebastian and failed to get guatitude from her. (অজ্ঞাত ব্যক্তি সিসেরোর ছদ্মবেশে থাকা ভায়ালাকে ভুল করে সেবাস্টিয়ান ভেবে বৃথা কৃতজ্ঞতা দাবি করেছিল।)

Ans:-Viola suspected that Olivia had fallen in love with her. (ভায়োলা সন্দেহ করল যে অলিবিয়া তার প্রেমে পড়েছি।)

Ans:-Making a willow cabin at her gates, she would call upon her name and sing sonncts on Olivia until she got her love. (তার ফটকের সামনে একটা কেবিন বানিয়ে সেখান থেকে তার নাম ডাকত ও তার নামের সনেট গাইত যতক্ষণ না তার ভালোবাসা লাভ করত।)

Ans:-Antonio, the sea-captain, helped Viola in the first duel. (প্রথম দ্বন্দ্ব যুদ্ধে ক্যাপ্টেন অ্যান্টোনি ভায়ালাকে সাহায্য করেছিল।)

Ans:-Viola fell in love with the young and handsome Duke Orsino. ভোয়োলা তরুন ও সুদর্শন রাজা অরসিনোর প্রেমে পড়েছিল।)

Ans:-The Duke Orsino commanded a song which he loved to be sung. (রাজা অরসিনো এই সময়টা কাটানোর জন্য তার প্রিয় প্রেমের গানটি গাওয়ালেন।)

Ans:-Orsino observed the sad looks for the unrequited love. [অরসিনো ব্যর্থ প্রেমের দুঃখজনক মুখাবয়ব সিসেরোর মুখে লক্ষ্য করেছিল।)

Ans:-She by mistake fell in love with a woman. অলিভিয়া ভুল করে এক মেয়ের প্রেমে পড়েছিল।)

Ans:-Olivia promptly sent for the priest to arrange her marriage with Sebastian. অলিভিয়া সঙ্গে সঙ্গে পুরোহিত ডাকাল সেবাস্টিয়ানের সঙ্গে তার বিয়ের আয়োজনের জন্য।)

Ans:-The riddle of Voila and Cesario was solved when Sebastian the real husband of Viola appeared before then. (ভায়োলা ও সিসেরোর রহস্যের সমাধান হল যখন অলিভিয়ার আসল স্বামী সেবাস্টিয়ান তাদের সামনে। হাজির হল।)

Ans:-The ship in which the identical twin brother and sister, Sebastian and Viola, were crossing the sea, faced a violent storm, and was wrecked near the coast of Illyria. With both of them on board, it was pushed by the storm against a rock, and was split into pieces. Most of the passengers of the ship lost their lives. At the moment of this disaster the brother and the sister became separated from each other.

Viola was saved by the captain of the ship, and they got to land in a small boat, along with a few lucky sailors. But instead of being happy to survive, she began to lament for her brother who, she assumed, must have died by drowning.

Sebastian, too, survived the peril. When the ship split, he fastened himself to a strong mast. This helped him to stay afloat on the waves for a long time. Later another sea captain called Antonio, lifted him up into his ship. Antonio not only saved Sebastian when he was almost dying out of exhaustion, but also gave him a sincere friendly protection. He felt an attachment for the young man at first sight.

Thus both Viola and Sebastian remained alive. Later they both arrived at Illyria, separately and at different times. Their identical appearance caused many confusions, both serious and comic. And finally, at the end of the drama, the mystery of the identical twins is revealed to call. Brother and sister become reunited after a long separation. Their joy is all the more great because both of them had thought that the other had died.

(যে জাহাজে চড়ে অবিকল যমজ ভাই ও বোন, সেবাস্টিয়ান ও ভায়োলা, সমুদ্রযাত্রা করছিল, সেটি এক প্রচণ্ড ঝড়ের মুখে পড়ে এবং ইলিরিয়ার সমুদ্রতটে অনতিদূরে ধ্বংসপ্রাপ্ত হয়। তাদের দুজনকে বুকে নিয়ে চলতে চলতে জাহাজটি ঝড়ের ধাক্কায় এক পাহাড়ের গায়ে গিয়ে সজোরে নিক্ষিপ্ত হয় এবং টুকরো টুকরো হয়ে যায়। জাহাজের অধিকাংশ যাত্রীই নিহত হয়। এই দুর্যোগের মুহূর্তে ভাইবোন পরস্পরের থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে।

ভায়োলাকে রক্ষা করেন জাহাজের ক্যাপ্টেন স্বয়ং। এঁরা দুজন এবং অল্প কয়েকজন ভাগ্যবান নাবিক একটা ছোটো নৌকো করে ডাঙায় পৌঁছান। কিন্তু এইভাবে বেঁচে গিয়ে ভায়োলা মোটেই সুখ অনুভব করল না। সে বিলাপ করতে লাগল তার ভাইয়ের জন্য, কারণ তার আশঙ্কা হল সে নিশ্চয়ই ডুবে মারা গেছে।

সেবাস্টিয়ান ও এই বিপদে প্রাণে বাঁচল। যখন জাহাজ টুকরো টুকরো হয়ে গেল, সে একটি ভারি মাস্তুলের সঙ্গে নিজেকে আষ্টেপৃষ্টে বেঁধে নিল। এটা তাকে অনেকক্ষণ অবধি ঢেউয়ের ওপর ভাসিয়ে রাখতে সাহায্য করল। পরে আর এক জাহাজের কাপ্টেন অ্যান্টনিও, তাকে এই অবস্থায় দেখে নিজের জাহাজে তুলে নিল। অ্যান্টনিও শুধু সেবাস্টিয়ান-এর জীবনই বাঁচায়নি—যখন সে চরম ক্লান্ত হয়ে মরতে বসেছিল—সে তাকে আন্তরিক বন্ধুসুলভ আশ্রয় দিয়েছিল। প্রথম দর্শনেই সে এই তরুণের প্রতি এক গভীর মমতা অনুভব করেছিল। এইভাবে ভায়োলা ও সেবাস্টিয়ান দুজনেই জীবিত রইল। পরে তারা দুজনেই ইলিরিয়ায় এসে উপস্থিত হল— অবশ্য আলাদা আলাদা ভাবে এবং বিভিন্ন সময়ে। তাদের একই রকম আকৃতি নানান ভুল বোঝাবুঝির সৃষ্টি করল, তার মধ্যে কিছু গুরুগম্ভীর কিছু কৌতুককর। আর শেষ পর্যন্ত নাটকের অন্তিম পর্বে একই চেহারার যমজের রহস্য সকলের কাছে পরিষ্কার হয়ে গেল। অনেকদিন পরস্পর থেকে বিচ্ছিন্ন থাকার পর ভাইবোনের পুনর্মিলন হল। তাদের আনন্দের পরিমাণও অনেক বেশি হল, কারণ তারা দুজনেই ভেবেছিল অপরজনের মৃত্যু হয়েছে।)

Ans:-As soon as she landed at Illyria, Viola learnt from the captain that the city was ruled by Duke Orsino. She had earlier heard about Orsino her father and thought he was a very admirable bachelor. The captain further informed her that the Duke was still unmarried and was unsuccessfully courting a rich lady of the city called Lady Olivia.

A young maiden in a foreign country, Viola naturally first thought of obtaining a job in the household of Olivia. But the captain told her that the lady was not seeing any outsider because she is lamenting the death of her brother. He also told her that he could not in any way help Viola meet the lady.

So Viola was compelled to look for a job at the Duke's court. She realized that as a young woman coming from another country, her situation would be rather unsafe in such a sphere. Her womanly instinct at once prompted her to disguise her identity under a male garment and a male name. In an adventurous spirit she decided to change herself from Viola to Cesario. She discussed the idea with the friendly captain. The latter at once agreed to help her in this respect. He supplied her with suitable dress. Viola intentionally chose clothes of such colour and design as her brother Sebastian wore. Attired in such dress, she looked exactly like Sebastian. That is why so much confusion was to take place in the story later. Now the captain took Viola, to be known as Cesario, to the court, and presented her to Orsino. The Duke was pleased with the handsome appearance and polite and polished words of Cesario. He at once engaged Cesario as one of his pages. And the latter soon became ‘his most favoured attendant'.

(ইলিরিয়াতে পৌঁছনোমাত্র ভায়োলা ক্যাপ্টেনের কাছ থেকে জানল যে শহরটির শাসক ডিউক অরসিনো। আগেই তার বাবার কাছে অরসিনো সম্পর্কে গল্প শুনেছিল এবং তাঁকে এক অত্যন্ত প্রশংসনীয় অবিবাহিত বলে জানত। ক্যাপ্টেন তাকে আরও জানালেন যে ডিউক এখনও বিয়ে করেননি এবং অলিভিয়া নামে এক অভিজাত ও সমৃদ্ধ পরিবারের তরুণীকে প্রেম নিবেদনের ব্যর্থ চেষ্টা করে যাচ্ছেন।

যেহেতু সে একজন তরুণী কুমারী এবং বিদেশে এসেছে, ভায়োলা স্বভাবতই প্রথমে ভাবল অলিভিয়ার সংসারে কোনো কাজ জোটানোর কথা। কিন্তু ক্যাপ্টেন তাকে জানাল যে ওই রমণী বাইরের কোনো লোকের সঙ্গে দেখা করছেন না, কারণ তিনি মৃত ভাইয়ের জন্য দিনরাত শোকপালন করছেন। ক্যাপ্টেন আরও বললেন যে, তিনি কোনোভাবেই ভায়োলার সঙ্গে ওই রমণীর সাক্ষাৎকারের ব্যবস্থা করতে পারবেন না।

সুতরাং ভায়োলা বাধ্য হল ডিউকের সভায় একটি কাজের জন্য উদ্যোগী হতে। সে এটা উপলব্ধি করল যে অন্য দেশ থেকে আসা একলা এক তরুণী হিসাবে এমন জায়গায় কাজ করা তার পক্ষে নিরাপদ হবে না। তার নারীসুলভ অন্তর্দৃষ্টি তাকে অনুপ্রেরণা দিল পুরুষের ছদ্মবেশ এবং পুরুষালি নাম গ্রহণ করতে, যাতে তার আসল পরিচয় গোপন থাকে। একটু সাহসী মন নিয়ে সে ঠিক করল তার নাম 'ভায়োলা' থেকে 'সিসারিও' হয়ে যাবে। বন্ধুসম ক্যাপ্টেনের সঙ্গে সে এ ব্যাপারে আলোচনা করল। তিনি তাকে সর্বপ্রকারে সাহায্যের প্রতিশ্রুতি দিলেন। তিনিই পুরুষোপযোগী পোশাক সরবরাহ করলেন। ভায়োলা ইচ্ছে করেই এমন ডিজাইন রঙের পোশাক পছন্দ করল, যেমন তার ভাই সেবাস্টিয়ান পরত। সেই কারণেই গল্পের পরের দিকে এত বেশি বিভ্রান্তি সৃষ্টি হয়েছিল দুটি মানুষকে নিয়ে। এখন ক্যাপ্টেন ভায়োলাকে নিয়ে গেলেন রাজসভায় এবং অরসিনোর কাছে তার নিবেদন জানালেন। ডিউক খুশি হলেন সিসারিওর সুন্দর আকৃতি দেখে এবং তার বিনয়ী ও পরিশীলিত কথা শুনে। তিনি তৎক্ষণাৎ সিসারিওকে তাঁর বিশেষ ভৃত্যরূপে নিযুক্ত করলেন এবং শীঘ্রই সে হয়ে উঠল তাঁর সবচেয়ে প্রিয় সহচর।)

Ans:- Within a few days from joining as a page of Duke Orsino, Cesario became the most favorite attendant of 'his' master. He became the Duke's constant companion, and Orsino unfolded to him the long history of his attachment to Lady Olivia. He confided to Cesario how he had tried again and again to persuade the lady to accept his love, and how the lady rejected his offers and forbade him to visit her. Her cruelty to him made Orsino a miserable man. He gave up all sports and found no joy in manly activities. He now passed his time only by listening to gentle music and sentimental love songs. He shunned the company of wise and learned lords, which had been so natural for him, and he fell in the estimate of the grave courtiers. In fact frustration in love badly affected his stature as a noble man. Now his only confidence was Cesario (Viola).

One day when they were talking about the strange impact of love on human mind, a gentleman came to report to the Duke. He had been sent to Olivia with the usual message of love. He said that he was not allowed to go to the lady, and he showed Orsino the answer which Olivia sent through her servant maid. It said that for further seven years Olivia would keep her face veiled even from the sun and the moon, and wet her bed-chamber with drops of tear for her dead brother. Even in despair the Duke thought that if the lady couldfeel so much love for a brother, how much more would she feel for a lover if once love awoke in her. Then, turning to Cesario and noticing his youthful, handsome appearance, the Duke asked him to undertake the mission of carrying his love message to Olivia. The Duke hoped that Cesario's appearance, and his eloquence and grace of speech would make a positive impression on the hitherto indifferent lady. He told Cesario to speak passionately about how much Orsino loved the lady, and enact the grief that he was suffering due to her rejection. In effect, the Duke asked Cesario to court Lady Olivia on his behalf, if it all he got that chance.

(ডিউক অরসিনোর বালক-ভৃত্য হিসেবে কাজে যোগদানের কয়েকদিনের মধ্যে সিসারিও তাঁর সবচেয়ে প্রিয় সহচর হয়ে উঠল। সে হল তাঁর সর্বক্ষণের সঙ্গী এবং অরসিনো তাকে প্রাণের সব কথা খুলে বললেন। লেডি অলিভিয়ার প্রতি তাঁর দীর্ঘদিনের প্রেমের কাহিনি সব জানালেন। সিসারিওকে বিশ্বাস করে তিনি বললেন কীভাবে তিনি বারংবার চেষ্টা করেছেন ওই রমণীর প্রণয় পাবার এবং বারংবার তাঁর আবেদন প্রত্যাখ্যাত হয়েছে এবং তাঁকে আসতে বারণ করা হয়েছে অলিভিয়ার বাড়ি। অরসিনোর প্রতি তাঁর নিষ্ঠুরতা ডিউককে দুঃখ-জর্জরিত করেছে। তিনি সমস্ত খেলাধুলা পরিত্যাগ করেছেন এবং পুরুষোচিত যেসব কার্যকলাপে আগে আনন্দ পেতেন, তা সব ছেড়েছেন। এখন তিনি সময় কাটান শুধু কোমল সুরের সংগীত শ্রবণে আর দুঃখবিলাসী গান শুনে। জ্ঞানী এবং বিদ্বান পদস্থ ব্যক্তিদের সাহচর্য তিনি বর্জন করেছেন—যা আগে তাঁকে স্বভাবতই করতে দেখা যেত—এবং গম্ভীর প্রকৃতির সভাসদের চোখে ডিউকের এই পতন বেদনাদায়ক লাগছে। সত্যিই প্রণয়ে হতাশা তাঁর মতো উচ্চমানের মানুষকে অনেকটাই নামিয়ে এনেছিল নিজের স্বাভাবিক উচ্চতা থেকে। এখন তাঁর একমাত্র প্রাণের বন্ধু হল সিসেরো (আসলে ভায়োলা), যাকে বিশ্বাস করে গোপন কথা বলা যায়।

একদিন তাঁরা যখন মানুষের মনের ওপর প্রেমের বিচিত্র প্রভাব নিয়ে আলোচনা করছেন, এক ভদ্রলোক এলেন এক খবর নিয়ে। তিনি ডিউকের দূত হিসাবে অলিভিয়ার বাড়ি গিয়েছিলেন যথারীতি প্রণয়-বার্তা নিয়ে, কিন্তু তিনি জানালেন, তাঁকে গৃহকর্ত্রীর কাছে যেতে দেয়া হয়নি। তিনি অরসিনো-কে তাঁর বার্তার যে উত্তর দেখালেন, সেটি পরিচারিকা মারফত প্রাপ্ত। তাতে বলা হয়েছে যে, আরও সাত বছর অলিভিয়া নিজের মুখ আবৃত রাখবেন, এমনকি চন্দ্র-সূর্যকেও দেখাবেন না, এবং নিজের শয়নকক্ষ সর্বদা চোখের জলে সিক্ত রাখবেন তাঁর মৃত ভাইয়ের স্মৃতিতে। হতাশার মধ্যেও ডিউক যেন এতে আশার আলো দেখলেন যে মেয়ে ভাইয়ের জন্য এত ভালোবাসা পোষণ করতে পারে, সে না জানি কত বেশি ভালোবাসবে তার প্রেমিককে, যদি একবার সে প্রেমে পড়ে। তারপর সিসারিও- র দিকে তাকিয়ে এবং তার তরুণ সুকুমার তনু লক্ষ করে ডিউক তাকে বললেন, এইবার তাঁর দূত হিসাবে তাকেই যেতে হবে অলিভিয়ার কাছে প্রেমের বার্তা নিয়ে। ডিউক আশা করলেন যে সিসারিও চেহারা এবং তার শ্রুতিমধুর উচ্ছ্বসিত বাকচাতুর্য এতদিন-উদাসীন অলিভিয়ার মনে এক ইতিবাচক প্রভাব ফেলবে। তিনি বললেন, সিসারিও যেন সমস্ত অন্তরের দরদ দিয়ে ওই মহিলাকে বলে তাঁকে কতখানি ভালোবাসেন অরসিনো, এবং যেন অভিনয় করে দেখায় তাঁর প্রত্যাখ্যানে মর্মাহত ডিউক কী করুণ ভাবে দিন কাটাচ্ছেন। কার্যত সিসেরোকে ডিউক পাঠালেন যেন তাঁর হয়ে সেই অলিভিয়াকে প্রেম নিবেদন করে।)

Ans:-While listening to the Duke's love for Olivia, and the pain this one-sided love caused to him, Cesario (Viola) began to feel that he loved the Duke desperately. She could not imagine that any young lady could refrain from loving such an honorable and admirable man. But the Duke talked on love with Cesario without knowing that 'he' was really a maiden. Viola, too, could not tell him the truth. Hence their conversation on love becomes strangely dramatic. We know that Viola is expressing her own feelings in riddles, but the Duke thinks that this young boy has no knowledge about profound love or women's psychology.

During the conversation on love, Cesario tells Orsino that it is a matter of deep regret that the lady is indifferent to his great qualities. He further asks the Duke that if some lady so deeply loves the Duke as he does Olivia, and the Duke cannot return that love, and tells her so, what alternative has that lady except to be satisfied with his answer? The Duke argues that no woman can love a man so intensely as he does his beloved. He believes that so much love cannot reside in a woman's heart. Cesario, being really a woman, and in intense love with Orsino, can not accept this view. He tells the Duke about her unspoken love, through a concocted story of an imaginary sister. The latter, he says, felt profoundly in love with a man, and never expressed her feeling. She pined away and grew pale and feeble. She sat with endless patience and smiled in her misery. The Duke curiously asks if the lady died of love. But Cesario avoids a direct answer, because Viola's identity cannot be disclosed. Their conversation thus comes to a point of no progression. So the intrusion of the messenger at this point is welcome.

(অলিভিয়ার প্রতি ডিউকের প্রেমের কথা শুনে এবং এই একতরফা প্রেমে অরসিনোকে কষ্ট পেতে দেখে, সিসারিও (অর্থাৎ ভায়োলা) অনুভব করল যে, সে ডিউককে ভীষণভাবে ভালোবাসে। সে কল্পনাও করতে পারল না এমন মহানুভব এবং প্রশংসনীয় পুরুষকে কী করে কোনো তরুণী ভালো না বেসে থাকতে পারে। কিন্তু ডিউক সিসারিও- র সঙ্গে প্রেম নিয়ে কথা বলেন সে যে আসলে এক কুমারী, সে কথা না জেনেই। আর ভায়োলা ও তাঁকে সত্যি কথাটা বলতে পারে না। তাই তাদের প্রেমবিষয়ক কথোপকথন এক অদ্ভুত নাটকীয় রূপ নেয়। আমরা জানি ভায়োলা তার নিজের অনুভূতিই ধাঁধার ভঙ্গিতে প্রকাশ করছে। কিন্তু ডিউক মনে করছেন যে, সে একটা অল্পবয়সি ছেলে, যার প্রেম বিষয়ে গভীর জ্ঞান নেই এবং সে মেয়েদের মনস্তত্ত্বও বোঝে না।

প্রেমবিষয়ক সংলাপ চলাকালে সিসারিও অরসিনোকে বলে যে, এটা পরম দুর্ভাগ্য, তাঁর প্রেমিকা তাঁর গুণাবলি সম্পর্কে সম্পূর্ণ উদাসীন। সে তারপর ডিউককে জিজ্ঞেস করে যে, যদি কোনো নারী তাঁকে এমনই গভীরভাবে ভালোবাসে যেমন তিনি অলিভিয়াকে বেসেছেন এবং তিনি তাকে প্রেম করতে না পেরে সে কথা সরাসরি জানিয়ে দেন, তার পক্ষে আর কী করার আছে এই পরিস্থিতি মেনে নেওয়া ছাড়া? ডিউক তর্ক করে বললেন কোনো নারী কোনো পুরুষকে এত তীব্র ও গভীরভাবে ভালোবাসতে পারে না, যেমন তিনি বেসেছেন তাঁর প্রেমিকাকে। তাঁর বিশ্বাস অত প্রেম নারীদের হৃদয়ে থাকতেই পারে না। সিসারিও, যেহেতু সে আসলে নারী এবং অরসিনোর প্রতি গভীরতম প্রেমে মগ্ন, এই দর্শনকে মেনে নিতে পারে না। সে ডিউককে তার অব্যক্ত প্রেম নিজের কল্পিত বোন-এর বানানো কাহিনির মাধ্যমে বলতে চাইল। সে বলল তার কোনো একটি পুরুষের প্রেমে গভীরভাবে মগ্ন হয়েছিল এবং কখনও তার মনোভাব প্রকাশ করেনি। সে ভিতরে ভিতরে শুকিয়ে যাচ্ছিল, ফ্যাকাশে ও দুর্বল হচ্ছিল, কিন্তু অসীম ধৈর্য নিয়ে হাসিমুখে নিজের যন্ত্রণা সয়ে যেত। ডিউক কৌতূহল ভরে শুধোলেন, সে প্রেমের কারণে মারা গেল কিনা। কিন্তু সিসারিও প্রত্যক্ষভাবে তার কোনো উত্তর দিল না। কারণ ভায়োলার আসল পরিচয় কোনোমতেই প্রকাশ করা চলবে না। তাদের কথোপকথন এইভাবে এমন একটা জায়গায় এসে দাঁড়াল, যেখান থেকে আর এগোনো যায় না। সুতরাং এই সময় এক দূতের আগমন ঘটল বাঞ্ছিত ভাবেই।)

Ans:-Sebastian was roaming about the city of Illyria, when a man, taking him for Cesario, struck him a blow. Sebastian gave him the proper treatment with valiant blows. Just then Olivia came out of her house and invited Sebastian to come into her house taking him for Cesario. Sebastian was surprised to be treated like a special guest by an unknown beautiful lady. But he was enjoying Olivia's attentions to him. Olivia impressed him also as the mistress of a fine house, and by the way she managed her affairs. He felt that the lady was not mentally balanced by any means. Olivia, on the other, found Cesario, as he took Sebastian for, in a good and receptive mood, and with a look of satisfaction on his face. Fearing that his mood might change, she at once sent for the priest to come to her house, and instantly unite them in marriage. Sebastian had no objection, and so they got married to each other in no time.

The Duke was furious to learn that Olivia had fallen in love with his page, Cesario. He angrily ordered Viola to come with him with a view to have him killed. But Olivia would not let Viola go with the Duke. She staked her claim upon her as a legal wife; and sent for the priest to give evidence of their recent marriage. Viola protested in vain that she was not married. The evidence of the lady and the priest made Orsino believe that his page has severely betrayed m. He angrily asked the dissembler never to come in his sight and bade farewell to his faithless mistress.

(সেবাস্টিয়ান ইলিরিয়া শহরে ঘুরে বেড়াচ্ছিল। হঠাৎ একটি লোক, তাকে সিসারিও মনে করে, এসে আঘাত করল। সেবাস্টিয়ানও প্রবল পরাক্রমে তাকে কয়েক ঘা দিয়ে দিল। ঠিক সেই সময় অলিভিয়া নিজের বাড়ি থেকে বেরিয়ে এল, এবং সেবাস্টিয়ানকে সিসেরো ভেবে আদর করে বাড়িতে নিয়ে গেল। সেবাস্টিয়ান একজন অপরিচিতা সুন্দরী নারীর কাছ থেকে এমন বিশেষ অতিথির আপ্যায়ন পেয়ে বিস্মিত হল। কিন্তু তার প্রতি অলিভিয়ার এত সমাদর সে বেশ উপভোগ করতে লাগল। সে দেখল অলিভিয়া একটি সুন্দর প্রাসাদের কর্ত্রী এবং সব ব্যাপারে তার সজাগ লক্ষ আছে। সে বুঝল এই রমণী আর যাই হোক পাগল নয় কোনোমতেই। এদিকে অলিভিয়া দেখল সিসারিও—সেবাস্টিয়ানকে সে এটাই ভাবল—আজ বেশ ভালো মেজাজে আছে এবং কোনো কিছুতেই আপত্তি করছে না। পাছে তার মতিগতি আবার পালটে যায়, সেই আশঙ্কায় সে তৎক্ষণাৎ পুরুতকে ডেকে পাঠাল বাড়িতে এবং প্রায় তৎক্ষণাৎ তিনি তাদের বিয়ের ব্যবস্থা করতে বললেন। সেবাস্টিয়ান কোনোরকম বিরোধিতা না করায় শীঘ্রই তাদের বিয়ে হয়ে গেল।

ডিউক শুনলেন অলিভিয়া তাঁর ভৃত্য সিসেরোর প্রেমে পড়েছে। শুনে বেজায় ক্রুদ্ধ হয়ে তিনি ভায়োলাকে তাঁর সঙ্গে আসতে বললেন, উদ্দেশ্য তাকে তিনি নিজের হাতে হত্যা করবেন। কিন্তু অলিভিয়া ভায়োলাকে কিছুতেই ডিউক-এর সঙ্গে যেতে দেবে না। সে তার দাবি পেশ করল যে সে এখন সিসারিওর আইনসম্মত স্ত্রী। যে পুরোহিত সম্প্রতি তাদের বিয়ে দিয়েছেন তাকেও সে ডেকে পাঠাল। ভায়োলা বৃথাই প্রতিবাদ করল যে তার বিয়ে হয়নি কারও সঙ্গে। অলিভিয়া এবং পুরোহিতের সাক্ষ্য শুনে অরসিনো বিশ্বাস করতে বাধ্য হলেন যে, তাঁর ভৃত্য তাঁর সঙ্গে চরম বিশ্বাসঘাতকতা করেছে। ক্রুদ্ধভাবে তিনি শঠ সিসারিওকে আদেশ দিলেন যেন সে আর কখনও তাঁর দৃষ্টিপথে না আসে, আর, তাঁর অবিশ্বস্ত প্রেমিকাকে চিরবিদায় জানালেন।)

Ans:- The root of mistaken identities is that Viola and Sebastian, sister and brother, are identical twins. They are so alike, that nothing but their dress can differentiate them. And even this difference is no longer felt since Viola disguises herself as Cesario at the court of Duke Orsino. Now she is dressed exactly like his brother, who is now separated from her since the shipwreck which they somehow survived. Three months after Viola joined as a page to the Duke, Sebastian comes to visit Illyria with his friend Antonio. Now he is mistaken for Cesario by several people, and Cesario is mistaken for Sebastian by Antonio. In fact Olivia who fell in love with Cesario (Viola) taking her for a man, marries Sebastian, still thinking that she was marrying Cesario.

The confusion reaches its climax when the Duke, suspecting Cesario to be in love with Olivia, is going to kill his page. Olivia rushes in and claims that Cesario is her lawful husband. The priest who got Olivia and Sebastian married, gives evidence in support of the claim. The Duke in grief and anger bid farewell to his unfaithful mistress, and orders his treacherous page never to come to his sight. Then suddenly a second Cesario appears on the scene and calls Olivia | his wife. He is obviously Sebastian, Viola's twin brother. Now at last, questioned by his brother, Viola admits that she is his sister Viola in the disguise of a man. The puzzle of mistaken identities is thus solved, and the Duke is happy to accept Viola as his duchess through marriage.

(পরিচিত নিয়ে ভ্রান্তির মূলে আছে যে সত্যটি তা হল ভায়োলা এবং সেবাস্টিয়ান, এই দুই ভাই বোন অবিকল যমজ। তাদের চেহারার এতই মিল যে শুধু পোশাকের পার্থক্য থেকেই তাদের চেনা যায়। আর এই পার্থক্যও আর রইল না যখন থেকে ভায়োলা ডিউক অরসিনোর সভায় গেল সিসেরোর ছদ্মবেশে। এখন সে ঠিক তার ভাইয়ের মতো পোশাক পরে, যে ভাই থেকে সে বর্তমানে বিচ্ছিন্ন জাহাজডুবির কারণে। অবশ্য এই ঘটনায় তারা দুজনেই বেঁচে যায়। ভায়োলা যখন ডিউকের কাছে ভৃত্য হিসেবে যোগ দেয়, তার তিনমাস পরে সেবাস্টিয়ান তার বন্ধু অ্যান্টোনীওর সঙ্গে ইলিরিয়া বেড়াতে আসে। এইবার বেশ কিছু লোক তাকে সিসারিও ভেবে ভুল করল, আর অ্যান্টোনীয় সিসারিওকে ভুল করে সেবাস্টিয়ান ভাবল। এমনকি অলিভিয়া, যে সিসারিও অর্থাৎ ভায়োলার প্রেমে পড়েছিল তাকে পুরুষ ভেবে, শেষ পর্যন্ত বিয়ে করল সেবাস্টিয়ানকে, এই ভেবে যে সে সিসারিওকেই বিয়ে করেছে।

এই ভ্রান্তি চরমে পৌঁছল যখন ডিউক, সিসারিও অলিভিয়ার সঙ্গে প্রেম করছে, এই সন্দেহবশত তাঁর ভৃত্যকে হত্যা করতে উদ্যত হলেন। অলিভিয়া ছুটে এসে দাবি করল যে সিসারিও তার আইনসম্মত স্বামী। যে পুরোহিত অলিভিয়া ও সেবাস্টিয়ানের বিয়ে দিয়েছিলেন, তিনিও এর সমর্থনে সাক্ষ্য দিলেন। রাগে দুঃখে মুহামান ডিউক তাঁর অবিশ্বস্ত প্রেমিকাকে চিরবিদায় জানালেন এবং তাঁর বিশ্বাসঘাতক ভৃত্যকে আর কোনোদিন তাঁর দৃষ্টিতে না আসার হুকুম দিলেন। তখন সহসা এক দ্বিতীয় সিসারিওর আবির্ভাব হল ঘটনাস্থলে। সে অলিভিয়াকে স্ত্রী বলে ডাকল। অবশ্যই সে সেবাস্টিয়ান, ভায়োলার যমজ ভাই। এইবার, অবশেষে, তার ভাইয়ের প্রশ্নেরউত্তরে ভায়োলা স্বীকার করল যে, সে তার বোন ভায়োলা, পুরুষের ছদ্মবেশে রয়েছে। পরিচিতি নিয়ে সব ভ্রান্তি। ও রহস্যের সমাধান হয়ে গেল। ডিউক তখন ভায়োলাকে নিজের ডাচেস করে নিলেন বিয়ে করে।)

Ans:-Viola, the heroine of 'Twelfth Night', deserves much more sympathy and admiration than any other heroine of Shakespeare's comedy. After the shipwreck, when she arrives at Illyria with the captain, she is in a miserable state with no resources, and his brother perhaps lost for ever. But without losing courage and common sense she coolly decides what she must do. When she learns that Orsino rules the city, and is still a bachelor, she decides to serve him as a page. Instinctively she forms the idea of disguising herself as a boy, and takes on the name of Cesario. She does it wisely, because a single girl of her age is not safe at a foreign court. Her charming manners and ready wit, along with her attractive appearance, easily please the Duke. She becomes his constant companion and confidant. But she finds herself in a great difficulty because the Duke always talks to her about how much he loves Olivia and how he suffers at her rejection of his love. She has to hear it while she herself is desperately in love with the Duke.

She faces a dilemma when the Duke sends her as his messenger to Olivia, for now 'she was to woo a lady to become a wife to him she wished to marry.' However Viola carries out her duty sincerely, and eloquently tells Olivia how much Orsino suffers for loving her. When Olivia still refuses the Duke's suit, Viola harshly reprimands her as a cruel beauty. But she soon realizes that the lady is fallen in love with her. Forgetting her own grief she feels sympathy for her, and says, 'Disguise, I see, is wicked, for it has caused Olivia to breathe as fruitless sighs for me as I do for Orsino.' She cannot confess her love for the Duke, and can only indirectly refer to it through the story of an imaginary sister who pined away with untold love for a man. When the Duke asks what kind of women he has loved, Viola says, 'Of your age and of your complexion my lord.'

Indeed Viola's love is great enough to defy death. When the Duke wants to kill her under the suspicion that she has fallen in love with Olivia and the latter has favoured her, Viola is not afraid. She is ready to die at the hand of her beloved, and even then does not disclose her sex. So when her identity is finally disclosed, and the Duke makes her his Duchess, we feel that she has been justly rewarded.

(শেকসপিয়রের অন্য কমেডিগুলির নায়িকাদের চেয়ে অনেক বেশি করে আমাদের সহানুভূতি ও প্রশংসা দাবি করে ‘Twelfth Night’-এর নায়িকা ভায়োলা। জাহাজ বিধ্বস্ত হবার পর যখন সে ইলিরিয়াতে এল ক্যাপ্টেনের সঙ্গে, তার অবস্থা অত্যন্ত করুণ। সঙ্গে কোনো অর্থ নেই এবং তার ভাই সম্ভবত চিরতরে হারিয়ে গেছে। কিন্তু সাহস এবং সাধারণ বুদ্ধি না হারিয়ে সে ঠান্ডা মাথায় সিদ্ধান্ত নিল কী করবে। যখন সে জানল, ডিউক অরসিনো এই শহরের শাসক এবং তিনি এখনও অবিবাহিত, সে ঠিক করল বালক-ভৃত্য হিসেবে তাঁর কাছে কাজ করবে। ষষ্ঠেন্দ্রিয় তাকে বলে দিল যে নিজেকে পুরুষের ছদ্মবেশ নিতে হবে এবং সেই সঙ্গে একটা উপযুক্ত নাম, সিসারিও। সুবিবেচনার ফলে সে বুঝেছিল যে তার বয়সি একলা একটি মেয়ে হিসাবে রাজসভায় থাকা নিরাপদ নয়। তার সুন্দর চেহারা, মনোহর ব্যবহার এবং প্রত্যুৎপন্নতা সহজেই ডিউককে খুশি করল। সে হয়ে উঠল তাঁর সর্বক্ষণের সহচর এবং এমন একজন যাকে বিশ্বাস করে গোপন কথা বলা যায়। কিন্তু সে এক কঠিন পরিস্থিতির মধ্যে পড়ল কারণ ডিউক সবসময় তাকে বলেন, তিনি অলিভিয়াকে কত ভালোবাসেন এবং সে তার প্রেম প্রত্যাখ্যান করায় কত কষ্ট পান। তাকে তা শুনতে হয়, যদিও সে নিজে প্রবলভাবে ডিউকের প্রেমে মগ্ন হয়ে পড়েছে।

যখন ডিউক তাকেই তাঁর ভালোবাসার দূত হিসাবে অলিভিয়ার কাছে পাঠাচ্ছেন, ভায়োলা এক উভয় সঙ্কটে পড়ল। কারণ এখন সে এক মহিলার মন জয় করতে চলেছে যিনি তাঁর স্ত্রী হবেন, যাঁকে সে নিজে বিয়ে করতে চায়। যাই হোক ভায়োলা তার কর্তব্য সততার সঙ্গেই সম্পন্ন করল এবং উচ্ছ্বসিত ভাষায় অলিভিয়াকে জানাল তাঁর প্রেমে অরসিনো কতখানি কাতর হয়ে পড়েছেন। যখন অলিভিয়া তবু ডিউকের প্রেম-প্রস্তাব খারিজ করে দিল, ভায়োলা তাকে কড়া ভাষায় তিরস্কার করল ‘নিষ্ঠুর সুন্দরী' বলে। কিন্তু সে শীঘ্রই বুঝতে পারল এই রমণী তারই প্রেমে পড়েছে। নিজের দুঃখ ভুলে সে তার প্রতি সহানুভূতি অনুভব করল এবং বলল, 'ছদ্মবেশ, এখন দেখছি, খুব খারাপ জিনিস, কারণ এটা অলিভিয়াকে আমার জন্য সেইরকম নিরর্থক দীর্ঘশ্বাস ফেলাচ্ছে, যেমন আমি ফেলছি অরসিনোর জন্য। ডিউকের প্রতি তার অনুরাগ সে প্রকাশ করতে পারছে না, শুধু পরোক্ষভাবে তার কল্পিত বোনের মাধ্যমে বলছে, যে একজনকে ভালোবেসে তা প্রকাশ না করে শুধু নিজের মনে গুমরে মরছে। যখন ডিউক তাকে শুধোল কেমন মেয়েকে ভালোবেসেছে, ভায়োলা বলে, “ঠিক আপনার বয়সি আর আপনার মতো দেহের বর্ণ তার।

বাস্তবিক, ভায়োলার প্রেম এত মহান যে তা মৃত্যুকে তুচ্ছ করতে পারে। যখন সে অলিভিয়ার প্রেমে পড়ছে এবং অলিভিয়ারও তাকে ভালো লেগেছে, এই সন্দেহবশত ডিউক তাকে হত্যা করতে উদ্যত, ভায়োলা এতটুকু ভয় পেল না। তার প্রাণেশ্বরের হাতে মৃত্যুবরণ করতে সে প্রস্তুত। এবং তখনও সে জানাল না সে একজন নারী। সুতরাং যখন শেষ পর্যন্ত ভায়োলার আসল রূপ উদ্ঘাটিত হল এবং ডিউক তাকে নিজের ডাচেস করে নিলেন, আমরা বুঝি সে তার যোগ্যতার উপযুক্ত পুরস্কার পেয়েছে।)

Ans:-Antonio is a sea-captain. He finds Viola's brother, Sebastian, exhausted and floating on the waves after the shipwreck and takes him up into his ship. Antonio quickly becomes very friendly to Sebastian. He is determined to accompany him everywhere. He also gives his bag of money to Sebastian, permitting him to spend money for anything he may like to buy, when they arrive at Illyria. He waits for him at the inn, while Sebastian goes to see the town. When Sebastian does not return even after a long time, Antonio has to go in search of him to the centre of the city. He knows that due to an earlier offence of having wounded the Duke's nephew in a sea-war, he will be arrested and punished by the law of Illyria. But he takes the risk for his friendly love of Sebastian. Antonio, going in search of Sebastian, suddenly sees a man attacking Sebastian with a sword on the street. He rushes to them and tells the attacker to fight with him, because he is ready to take any hazard for the good of Sebastian. But the fact is that he takes Cesario (Viola) for Sebastian, the twin brother and sister being so alike in appearance. Just then the city guards spot Antonio and recognizing that he was an old culprit, arrest him. Now Antonio asks Viola to give him the purse he had entrusted with Sebastian. Viola says that she does not know him, and has not received any money-bag from him. Antonio, who thinks that Viola is Sebastian calls her ungrateful and unkind. The officers drag him away to the court. There, also, seeing Viola near the Duke, Antonio tells the Duke how he saved this young man from drowning in the sea, gave him his money, and how the young man is refusing to know him even after spending three months, both day and night with him. The Duke dismisses his claim by saying that the youth has attended on him in the last three months.

Thus Antonio's episode highlights the confusion created by identical twins, and further heightened by Viola's disguise as Cesario. But from Antonio's account Viola has reasons to be hopeful about her brother's survival from the shipwreck.

(অ্যান্টোনীয় এক সামুদ্রিক জাহাজের ক্যাপ্টেন। তিনি ভায়োলার ভাই সেবাস্টিয়ানকে বেদম অবস্থায় ঢেউয়ের ওপর ভাসতে দেখেন তাদের জাহাজ ধ্বংস হবার পর এবং তাকে নিজের জাহাজে তুলে নেন। অ্যান্টোনীয় খুব দ্রুত সেবাস্টিয়ানের বন্ধু হয়ে গেলেন। সর্বত্র তিনি সেবাস্টিয়ানের সঙ্গী হিসাবে রইলেন। যখন তারা ইলিরিয়াতে এলেন, তিনি সেবাস্টিয়ানকে তাঁর টাকার ব্যাগ দিয়ে তা থেকে যে কোনো জিনিস কেনার জন্য খরচ করার অনুমতি দিলেন। সেবাস্টিয়ান শহর ঘুরে দেখতে গেল, অ্যান্টোনীয় তার জন্য সরাইখানায় অপেক্ষা করতে লাগলেন। অনেকক্ষণ পরেও যখন সেবাস্টিয়ান ফিরল না, অ্যান্টোনীয় বাধ্য হয়ে তার খোঁজে গেলেন। শহরের মধ্যস্থলে। তিনি জানেন যে তিনি একদা সামুদ্রিক যুদ্ধে ডিউকের ভাইপোকে গুরুতর আঘাত হেনেছিলেন এবং সেই অপরাধে তাঁকে দেখতে পেলে ইলিরিয়ার আইন অনুযায়ী দণ্ড দেওয়া হবে। কিন্তু সেবাস্টিয়ানের প্রতি বন্ধুপ্রেমের খাতিরেই তিনি এতবড়ো ঝুঁকি নিলেন। সেবাস্টিয়ানকে খুঁজতে খুঁজতে হঠাৎ অ্যান্টোনীয় দেখলেন রাস্তায় একটি লোক তরবারি নিয়ে সেবাস্টিয়ানকে আক্রমণ করতে উদ্যত। তিনি সেখানে ছুটে গিয়ে আক্রমণকারীকে বললেন, তিনি তার সঙ্গে লড়বেন। সেবাস্টিয়ানকে বিপদ থেকে বাঁচানোর জন্য অ্যান্টোনীয় নিজের জীবন দিতে প্রস্তুত। প্রকৃত ঘটনা হল, তিনি সিসারিও (ভায়োলা)-কে সেবাস্টিয়ান ভেবেছিলেন, কারণ দুই যমজ ভাইবোনকে ঠিক একইরকম দেখতে ছিল। ঠিক সেই সময় শহরের রক্ষকরা অ্যান্টোর্নীয়োকে দেখে শনাক্ত করল এবং তিনি এ শহরে আইনত দণ্ডনীয় বুঝতে পেরে তাঁকে গ্রেফতার করল। এখন অ্যান্টোনীয় ভায়োলার কাছে তাঁর গচ্ছিত রাখা টাকার ব্যাগটি চাইলেন। ভায়োলা বলল সে তাঁকে চেনে না, এবং তাঁর কাছ থেকে কোনো টাকার ব্যাগও কখনও পায়নি। অ্যান্টোনীয় ভায়োলাকে সেবাস্টিয়ান ভেবে ক্রুদ্ধ হয়ে অকৃতজ্ঞ, নির্দয় ইত্যাদি রূঢ় কথা বললেন। অফিসাররা তাঁকে টানতে টানতে কোর্টে নিয়ে চলল। বিচারসভাতেও ডিউকের পাশে ভায়োলাকে দেখে অ্যান্টোনীয় ডিউকের কাছে অভিযোগ জানালেন। সবিস্তারে বললেন, কীভাবে তিনি এই যুবককে সমুদ্রে ডুবে মরা থেকে বাঁচিয়েছেন, তাঁর টাকা তাকে রাখতে দিয়েছেন; অথচ গত তিনমাস দিনরাত একসঙ্গে থাকার পরেও এই যুবক এখন তাকে চিনতে অস্বীকার করছে! ডিউক তাঁর দাবি অগ্রাহ্য করে বললেন যে, এই যুবক গত তিনমাস তাঁর সঙ্গেই কাটিয়েছে।

এইভাবে অ্যান্টোনীয়র আখ্যানটি অবিকল যমজদের দ্বারা সৃষ্ট ভুল বোঝাবুঝির ব্যাপারটাকে নজরে বেশি করে এনেছে এবং এই বিভ্রান্তি আরও বেড়েছে ভায়োলা ও সিসারিওর ছদ্মবেশ ধারণ করার ফলে। তবে অ্যান্টোনীওর বর্ণনা থেকে ভায়োলা একটা ব্যাপারে অনেকটা আশাবাদী হতে পারছে যে, তার ভাই জাহাজ ধ্বংসের পরেও বেঁচে আছে।)

Ans:- Olivia is a beautiful and young rich lady. She has recently lost her brother. She makes a great show of lament for him. Her vow to see no outsider for seven years, and even veil her face to natural elements like light and air, is very unnatural. In fact she is very proud of her beauty, and she finds a kind of satisfaction by refusing the suit of Duke Orsino again and again.

But as soon as Viola appears on the scene, dressed as Cesaro, come with a message from the Duke, there is a sudden change in Olivia. She betrays a fondness for the young page and likes to talk with him. Though she still refuses Orsino's love, she makes it clear that she has liked Viola to the point of loving her. Her weakness becomes apparent when she sends a ring of pearl through a servant to Viola, with the excuse that she is returning a gift sent by the Duke. So Olivia lacks the womenly intuitiveness and perceptivity which might make her suspect that Cesario is a woman. In their second interview she plainly expresses her love to Viola, whom she thinks a fascinating gentleman : 'Cesario, by the roses of spring by maidenhood, honour and by truth, I love you so, that, in spite of your pride, I have neither wit nor reason to conceal my passion.' We can not but pity Olivia for having loved a woman. As Viola says, 'the poor lady might as well love a dream.’

Luckily for her she actually marries Viola's brother Sebastian, who looks exactly like her sister in a similar dress. Having married him, Olivia again mistakes Cesario for her husband, and does her best to prove to the Duke that they have been married by a particular priest, and the latter stands witness to it. Her mistake is felt only when Sebastian and Viola both appear in the same scene at the end of the story, and Viola admits that she is Sebastian's twin sister.

Compared to Viola, Olivia is a much simpler character. Shs is like any other young girl of a rich family who stick to their likes and dislikes. She is vain and impulsive, and when in love, she is ready to possess her object of love by any means. She lacks Viola's nobility, and is somewhat selfish.

(অলিভিয়া একজন সুন্দরী ও বিত্তশালী তরুণী। সম্প্রতি তার ভ্রাতৃবিয়োগ হয়েছে। সে তার জন্য খুব ঘটা করে। লোক দেখিয়ে শোক করছে। সাত বছরের জন্য সে কোনো বাইরের লোকের মুখ দেখবে না, এমনকি আলো, হাওয়া ইত্যাদি প্রাকৃতিক জিনিস থেকেও নিজের মুখ ঢেকে রাখবে, এমন প্রতিজ্ঞা বড়োই অস্বাভাবিক। আসলে সে নিজের | রূপে খুব গর্বিত এবং ডিউক অরসিনোর প্রেম নিবেদন বারবার প্রত্যাখ্যান করে এক ধরনের আনন্দ পায়।

কিন্তু যে মুহূর্তে সিসারিওবেশী ভায়োলার দৃশ্যে আগমন ঘটল ডিউকের প্রেমবার্তা নিয়ে, অলিভিয়ার মধ্যে হঠাৎ একটা পরিবর্তন দেখা গেল। সে ওই তরুণ ভৃত্যের প্রতি বেশ একটা আসত্তি প্রকাশ করল এবং তার সঙ্গে কথা বলায় আগ্রহ দেখাল। যদিও সে তখনও অরসিনোর প্রেম প্রত্যাখ্যান করছে, তবু সে পরিষ্কার বুঝিয়ে দিল যে ভায়োলাকে শুধু তার ভালো লাগেনি, সে তাকে ভালোবেসেছে। তার এই দুর্বলতা প্রকট হয়ে গেল যখন সে এক ভৃত্যের হাত দিয়ে ভায়োলাকে একটি হিরের আংটি পাঠাল, এই অজুহাত দিয়ে যে সেটা ডিউক অলিভিয়াকে উপহার হিসাবে পাঠিয়েছিলেন। সুতরাং দেখা যাচ্ছে অলিভিয়ার নারীসুলভ সেই মানসিক ক্ষমতা এবং অন্তর্দৃষ্টি নেই, যার দ্বারা তার বোঝা উচিত ছিল সিসারিও একজন নারী। তাদের দ্বিতীয়বার দেখা যখনহল, অলিভিয়া খোলাখুলিভাবে ভায়োলাকে প্রেম নিবেদন করে বসল এক মোহময় ভদ্রলোক ভেবে—‘সিসারিও, বসন্তের গোলাপ, কুমারীত্ব, আত্মসম্মান ও সত্যের নামে শপথ করে বলছি, আমি তোমাকে ভালোবাসি। আমার এই কামনা গোপন করার কোনো বুদ্ধি আমার নেই, আর তার কারণও নেই। আমরা অলিভিয়াকে করুণা না করে পারি না, কারণ সে এক নারীকে ভালোবেসেছে। ভায়োলা ঠিকই বলেছে, ‘বেচারি রমণী, এর চেয়ে স্বপ্নকে ভালোবাসলে পারত!’

Ans:-Cesario, the page boy of Duke Orsino, was sent to Olivia's house as a messenger. Olivia who was a rich heiress of Illyria and Duke Orsino's beloved, was 'in deep mourn' due to untimely death of her brother. She did not like to see anyone of the Duke's messengers.

We know that Cesario was originally a beautiful maiden called Viola who took the garb of a page so that she could safely work in the Duke's court. The Duke Orsino of Illyria was deeply in love with Olivia. The Duke could rightly guess that Olivia had started to ignore his love appeals. Therefore, Cesario was sent to Olivia as a special messenger to Olivia's house.

At first, Cesario was denied entry in Olivia's house in his first visit. Cesario's persistent appeal to see Olivia bore fruits and he was allowed to see the lady of the house. Olivia was still 'in deep mourn 'and was avoiding 'the company of men'. Cesario was successful in his mission and reported Olivia about the love-sick condition of the Duke. Olivia fell in love with Cesario in the first sight and tried her best to express her concern for Cesario by sending 'a diamond ring' through one of her messengers. No wonder, Cesario refused to accept that 'ring'. Olivia invited Cesario as a private person but not as the 'Duke's messenger'. This episode clearly shows that Olivia was really impressed by manly disposition and graceful presence of Cesario.

On his second visit, Cesario found a friendly welcome to Olivia's house. He was taken to Olivia's chamber and there was no sign of her 'deep set mourning'. Olivia was more expressive in her concern for Cesario. Cesario felt pity for Olivia as loving Cesario was equal to ‘loving a dream' love, Thus, Cesario was well received at Olivia's house and her heart.

(অলিভিয়ার বাড়িতে রাজা অরসিনোর বালকভৃত্য সিসেরোকে দূত হিসেবে পাঠানো হয়েছিল। অলিভিয়া ছিল। ইলিরিয়ার ধনী উত্তরাধিকারিণী ও রাজা অরসিনোর প্রিয়তমা যে কিনা তার দাদার অসময়ে ঘটা মৃত্যুর জন্য গভীরভাবে শোকাহত ছিল। সে রাজার কোনো দূতের সাক্ষাৎ পছন্দ করত না।

আমরা জানি যে সিসেরো আসলে ভায়োলা নামে এক সুন্দরী কুমারী যে রাজার প্রাসাদে নিরাপদে কাজ করার জন্য এক বালক ভৃত্যের পোশাক পরেছিল। ইলিরিয়ার রাজা অরসিনো অলিভিয়াকে অত্যন্ত ভালোবাসত। রাজা সঠিক অনুমানটাই করেছিল যে অলিভিয়া তার প্রেম নিবেদন অবজ্ঞা করতে শুরু করেছিল। তাই সিসেরোকে বিশেষ দূত হিসেবে অলিভিয়ার বাড়িতে পাঠানো হয়েছিল।

প্রথমে সিসেরোর প্রথম যাত্রায় অলিভিয়ার বাড়িতে তার প্রবেশ অস্বীকৃত হয়েছিল। সিসেরোর অলিভিয়াকে দেখার নাছোড়বান্দা আবেদন সফল হল ও তাকে তার বাড়িতে যাওয়ার অনুমতি দেওয়া হল। অলিভিয়া তখনও শোকহত। ছিল ও পুরুষ সঙ্গ ত্যাগ করেছিল। সিসেরো তার লক্ষ্যে সফল হয়েছিল ও প্রেমাতুর রাজার অবস্থা অলিভিয়াকে জানাল। অলিভিয়া প্রথম সাক্ষাতেই সিসেরোর প্রেমে পড়ল ও প্রেমের প্রতীক হিসেবে সে এক ভৃত্যের হাত দিয়ে একটি হীরার আংটি পাঠাল। নিঃসন্দেহে সিসেরো তা প্রত্যাখ্যান করল। অলিভিয়া সিসেরোকে ব্যক্তিগতভাবে আমন্ত্রণ করল কিন্তু রাজার দূত হিসেবে নয়। এই উপাখ্যান স্পষ্টভাবে প্রমাণ করে যে অলিভিয়া সিসেরোর পুরুষসুলভ স্বভাব এবং উপস্থিতিতে প্রকৃতপক্ষে অভিভূত হয়েছিল।

তার দ্বিতীয় যাত্রায় সিসেরো অলিভিয়ার বাড়িতে এক সাদর অভ্যর্থনা লাভ করল। তাকে অলিভিয়ার ঘরে নিয়ে যাওয়া হল ও তার গভীর শোক আদৌ দেখা গেল না। সিসেরোর প্রতি তার আকুতি প্রকাশে অলিভিয়া খুবই উদ্গ্রীব ছিল। সিসেরো অলিভিয়ার জন্য দুঃখিত হল যেহেতু সিসেরোকে ভালোবাসার অর্থ হল স্বপ্নের প্রেমকে ভালোবাসা। এইভাবে সিসেরো অলিভিয়ার অন্তরে ও তার বাড়িতে সুন্দর অভ্যর্থনা লাভ করেছিল।]

Ans:- Viola and Olivia, as introduced in the story "Twelfth Night', written by Charles and Mary Lamb, are parallel characters with lot of similarities and a number of contrasts.

Viola was a young talented and beautiful maiden. Olivia was also a beautiful and young maiden. While Viola suffered the pain of temporary separation from her twin brother, Sebastian, Olivia had to mourn the untimely death of her only brother.

While Duke Orsino was in deep love with Olivia, the latter had no concern for the Duke. On the other hand, Viola was in deep love with Orsino, still she kept it secret. While Olivia expressed her love for Cesario, Cesario could not show such feelings of love neither for Olivia nor for the Duke. While Orsino was madly in love with Olivia who did never show such love feeling for him in return, Viola was ready to sacrifice her life. for Orsino, the Duke of Illyria. htar28 While Viola survived the shipwreck in the deep sea, Olivia survived 'deep mourning after the death of her father and brother.

While Viola was able to impress both the Duke and Olivia as Cesario, Olivia was able to infatuate the Duke till her marriage with Sebastian (Viola's brother).

Olivia was a rich heiress and was whimsical in her mood. On the other hand, Viola was a patient observer of human nature and situation. In spite of her pain, Viola had to become a messenger of the Duke's proposal of love for Olivia. But Olivia had no such mental pressure.

Olivia could never keep her love-feelings secret and told Cesario that she was in love with him. In contrast, Viola was able to keep her lovefeelings for Orsino secret and took help of an imaginary sister to hint at her lovefeelings for Orsino.

(চার্লস ও মেরি ল্যাম্বের লেখা টুয়েলফথ নাইট’ গল্পের বর্ণনা অনুসারে ভায়োলা ও অলিভিয়া হল সম্পূর্ণ সদৃশ চরিত্র যেগুলির মধ্যে অনেক সাদৃশ্য ও বৈসাদৃশ্য আছে।

ভায়োলা ছিল সুন্দরী প্রতিভাশালী তরুণী। অলিভিয়াও সুন্দরী তরুণী। ভায়োলা যখন তার যমজ ভাই সেবাস্টিয়ানের কাছ থেকে অস্থায়ী বিচ্ছেদের ব্যথা ভোগ করছিল, তখন অলিভিয়া তার একমাত্র দাদার অকাল মৃত্যুর জন্য শোকাহত হয়েছিল।

রাজা অরসিনো যখন অলিভিয়ার প্রেমে মগ্ন ছিল, অলিভিয়ার তখন রাজার প্রতি কোনো টান ছিল না। অপরদিকে ভায়োলা অরসিনোর গভীর প্রেমে পড়েছিল, তবুও সে এটাকে গোপনে রেখেছিল। যখন অলিভিয়া সিসেরোর প্রতি ভালোবাসা প্রকাশ করল, সিসেরো ভালোবাসার সেই রকম অনুভূতি অলিভিয়ার প্রতি বা রাজার প্রতি প্রকাশ করল না।

যখন অরসিনো অলিভিয়ার প্রেমে পাগল যে অরসিনোর প্রতি প্রত্যুত্তরে কোনোরকম প্রেমানুভূতি দেখাল না, ভায়োলা তখন ইলিরিয়ার রাজা অরসিনোর জন্য জীবন উৎসর্গ করতে প্রস্তুত ছিল। যখন ভায়োলা গভীর সাগরে জাহাজডুবি থেকে উদ্ধার হল, তখন অলিভিয়া তার বাবা ও দাদার মৃত্যুর শোক থেকে মুক্ত হল।

যখন ভায়োলা রাজা ও অলিভিয়াকে সিসেরো সেজে প্রভাবিত করেছিল, অলিভিয়া তখন সেবাস্টিয়ানের সঙ্গে তাঁর বিয়ে হওয়ার আগে পর্যন্ত রাজাকে বিমোহিত করেছিল।

অলিভিয়া ছিল ধনী উত্তরাধিকারিণী ও খামখেয়ালি প্রকৃতির। অপরদিকে, ভায়োলা ছিল মানুষের প্রকৃতি ও পরিস্থিতির ধৈর্যশীলা পর্যবেক্ষক। তার ব্যথা সত্ত্বেও, ভায়োলাকে অলিভিয়ার প্রতি রাজার প্রেমনিবেদনের দূত হতে হয়েছিল। কিন্তু অলিভিয়ার এরকম কোনো মানসিক যন্ত্রণা ছিল না।

অলিভিয়া তার প্রেমানুভূতি গোপন রাখতে পারল না এবং সিসেরোকে বলল যে সে তার প্রেমে পড়েছিল। তুলনামূলকভাবে ভায়োলা অরসিনোর প্রতি তার প্রেম গোপন রাখতে পেরেছিল ও এক কাল্পনিক নারীর সহায়তায় ইঙ্গিত দিয়ে অরসিনোর প্রতি তার ভালোবাসার অনুভূতি প্রকাশ করল।)

Ans:-Viola is an interesting character. She had to suffer a lot of troubles before she got Orsino, the Duke of Illyria, as her husband.

Viola who was still putting on the garb of a page boy called Cesario when she was returning from Olivia's palace after her second visit. A man who was 'a rejected suitor' of Olivia entreated Cesario for a duel. In Cesario's uniform of 'a page', Viola looked like Sebastian.

Meanwhile, Antonio, the captain and saver of Sebastian's life was passing by the way. He came to Cesario's help as the latter looked exactly like Sebastian. When Antonio was fighting with the man he was arrested by the Duke's men on the ground that he had killed the Duke's nephew in a high sea fight earlier. Thus, Cesario was saved for the time being.

We know that Antonio was a captain of another ship. He was able to save Sebastian from the clutches of death. Later on, he took great care of Sebastian'sfood and lodging and other needs. He took the risk of entering the dukedom of Illyria in search of Sebastian with whom he had kept his purse.

When Antonio was brought in the Duke's court for judgment, Viola was present there as Cesario. Viola was accused of ingratitude by Antonio as the latter identified her as Sebastian by mistake. No doubt, Antonio was a victim of the mistaken identity of Viola (in Cesario's uniform) who looked as gallant as Sebastian.

Thus, Viola was accused without any fault on her part.

(ভায়োলা একটি কৌতূহলোদ্দীপক চরিত্র। ইলিরিয়ার রাজা অরসিনোকে তার স্বামী হিসেবে পাওয়ার আগে তাকে অনেক কষ্ট ভোগ করতে হয়েছে।

দ্বিতীয়বার যাত্রার পর ভায়োলা যখন অলিভিয়ার বাড়ি থেকে ফিরছিল তখনও সে সিসেরো নামে বালকভৃত্যের পোশাক পরেছিল। অলিভিয়ার প্রত্যাখ্যাত পাণিপ্রার্থী সিসেরোকে পথে দ্বন্দ্ব যুদ্ধে আহ্বান করল। ভায়োলাকে সিসেরোর বালকভৃত্য বেশে সেবাস্টিয়ানের মতো দেখতে লাগছিল।

ইতিমধ্যে, সেবাস্টিয়ানকে উদ্ধারকারী ক্যাপটেন অ্যান্টনি সেই পথ দিয়ে যেতে ছিল। সে সিসেরোকে সাহায্য করল যেহেতু তাকে অবিকল সেবাস্টিয়ানের মতো দেখতে লাগছিল।

যখন অ্যান্টনি লোকটির সঙ্গে যুদ্ধ করছিল এক সাগর-যুদ্ধে রাজার ভাইপোকে হত্যা করার অভিযোগে তাকে রাজার লোকেকরা গ্রেপ্তার করল। এইভাবে সেই সময়ের জন্য সিসেরোকে উদ্ধার করা হল।

আমরা জানি যে অ্যান্টনি অন্য একটি জাহাজের ক্যাপটেন। সে সেবাস্টিয়ানকে মৃত্যুর হাত থেকে উদ্ধার করেছিল। তারপর, সে সেবাস্টিয়ানের খাদ্য, বাসস্থান ও অন্যান্য প্রয়োজনীয় জিনিসের বিশেষ যত্ন নিত। সে ইলিরিয়ার রাজ্যে ঝুঁকি নিয়ে সেবাস্টিয়ানের খোঁজে প্রবেশ করল, কারণ তার (সেবাস্টিয়ানের) কাছে তার মানি পার্সটা ছিল।

যখন অ্যান্টনিকে রাজার প্রাসাদে তার বিচারের জন্য হাজির করা হল ভায়োলা তখন সিসেরার বেশে সেখানে উপস্থিত ছিল। ভায়োলাকে অ্যান্টনি অকৃতজ্ঞ বলে অভিযুক্ত করেছিল যেহেতু সে ভুল করে তাকে সেবাস্টিয়ান বলে চিনেছিল। নিঃসন্দেহে অ্যান্টনি ভায়োলার ভুল পরিচয়ের শিকার হয়েছিল (সিসেরোর বেশে) যে অবিকল সেবাস্টিয়ানের মতো সুন্দর মতো দেখতে ছিল।

এইভাবে, ভায়োলা বিনা দোয়ে অভিযুক্ত হয়েছিল।)