Lesson-13, The Man Who Planted Trees

Ans. The people who inhabited the four or five remote villages were woodcutters. They burnt wood to obtain charcoal. [দূরের চার- পাঁচটি গ্রামে যারা বসবাস করত, তারা ছিল কাঠুরিয়া। তারা কাঠকয়লা তৈরি করত।]

 Ans. The shepherd lived all alone. He gave the narrator a feeling of peace. He gave the narrator the impression that nothing could disturb him. Therefore, the narrator was intrigued. He wanted to know more about the man. [মেষপালকটি একেবারে একা বসবাস করত। সে লেখককে শান্তির অনুভূতি দিয়েছিল। সে লেখককে এই ধারণা দিয়েছিল যে কোনো কিছুই তার বিঘ্ন ঘটাতে পারে না। সেজন্য লেখক কৌতূহলী হয়েছিলেন। তিনি মানুষটি সম্পর্কে আরও জানতে চেয়েছিলেন।]

Ans. Elzéard Bouffier had an iron rod. He pounded with it to make a hole in the ground. He placed an acorn in it. Then he covered the hole again. [এলজেয়ার্ড ব্যুফিয়েরের একটি লোহার রড ছিল। তিনি সেটা দিয়ে মাটি খুঁড়ে গর্ত তৈরি করতেন। সেখানে তিনি একটি ওকফল রাখতেন । তারপর তিনি গর্তটা আবার ভরাট করতেন।]

Ans. The narrator revisited the country more than five years later. [লেখক ওই গ্রামাঞ্চলে পাঁচ বছরেরও বেশি সময় পর আবার গিয়েছিলেন।]

Ans. Elzéard Bouffier lived in a lonely and desolate region. It was far away from the battlefields of France. So the war had not been able to disturb him. During those five years he remained deeply absorbed in planting oaks. [এলজেয়ার্ড ব্যুফিয়ের এক নির্জন পাণ্ডববর্জিত জায়গায় বাস করতেন । ফ্রান্সের যুদ্ধক্ষেত্র থেকে এটি ছিল বহু দূরে। তাই তাঁকে যুদ্ধ কোনো মতে প্রভাবিত করতে পারেনি। ওই পাঁচ বছর ধরে তিনি বৃক্ষরোপণে গভীরভাবে নিয়োজিত ছিলেন।

Ans. The narrator was speechless. He spent the whole day walking through the man- made forest in silent awe. He thought that the shepherd was a creator like God. [লেখক হতবাক হয়ে পড়েছিলেন। তিনি সারাদিন মানুষের তৈরি সেই জঙ্গলে নীরবে হেঁটে বেড়িয়েছিলেন। তিনি ভেবেছিলেন মেষপালকটিও ঈশ্বরের মতোই একজন স্রষ্টা।]